আসুন জেনে নেই ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রেখে কিভাবে ফ্রি WiFi ব্যবহার করবেন।

WiFi বা তারহীন ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক এখন অনেকটাই সহজলভ্য। বর্তমানে অনেক হোটেল , বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এমনকি পাবলিক প্লেসেও এই সুবিধা পাওয়া যায়। এবং এই সুবিধা পাওয়ামাত্রই আমরা আমাদের ল্যাপটপ, স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট এ ইন্টারনেট ব্যবহার শুরু করে দেই। কখনো কি ভেবে দেখেছেন এই ফ্রি WiFi ব্যবহার শতভাগ নিরাপদ কিনা? কারন আপনার অসাবধানতায় আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সাইবার অপরাধীদের কাছে পাচার হয়ে যেতে পারে। নতুন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে ঝুকিটা বেশি।

কিভাবে ফ্রি WiFi ব্যবহার করবেন।

০১. সচেতনতা >মনে করুন Free WiFi ব্যবহারকালীন সময়ে আপনি কোন এক ওয়েব সাইটে আপনারে ই-মাইল আইডি, পাসওয়ার্ড বা অন্য কোন তথ্য দিলেন, ঠিক সে সময় কোন হ্যাকার বা তৃতীয় কোন ব্যাবহারকারী আপনার এই তথ্য হ্যাক করে নিতে পারে। তাই খুব দরকার না হলে Free WiFi এ ব্যাক্তিগত তথ্য আদান প্রদান থেকে বিরত থাকুন।

০২. নিরপত্তা সফটওয়্যার > ভালো এবং উপযুক্ত নিরাপত্তা সফটওয়্যার ব্যবহার করুন। স্মার্টফোনে ম্যালওয়্যার এ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। নিরাপত্তা সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে এই আক্রমন থেকে নিরাপদ থাকা সম্ভব।

০৩. স্লো ওয়াইফাই > ধীরগতির WiFi নেটওয়ার্কে সাবধানতা অবলম্বন করুন। অনেক সময় লগ ইন পেজে ধীরগতির ওয়াই-ফাই এর জন্য পেজ আটকে যেতে পারে, সে ক্ষেত্রে এমনও হতে পারে যে ওয়াই-ফাই সংযোগ সরাসরি রাউটার না হয় অন্য কোন ডিভাইস ঘুরে রাউটারে যুক্ত হচ্ছে।

০৪. অনলাইন শপিং > Free WiFi এ যুক্ত থাকা অবস্থায় যতদুর সম্ভব অনলাইন শপিং বা অনলাইন ব্যাংকিং থেকে দূরে থাকুন। কারন এতে আপনার কার্ড নাম্বার/পিন নাম্বার হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

০৫. ওয়াই-ফাই বন্ধ > Free WiFi এ কানেক্ট হওয়ার পর দরকারি কাজ শেষ হওয়ামাত্রই ওয়াই-ফাই কানেকশন ডিস্কানেক্ট করে ফেলুন, এতে করে আপনার স্মার্টফোনে অবাঞ্ছিত ম্যালওয়্যার আসার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যাবে।

০৬. ভিপিএন > Free WiFi ব্যবহার করতে চাইলে ভিপিএন ব্যবহার করুন। এতেও কিছুটা ঝুকি কমে।

সর্বপরি আপনার স্মার্টফোনের/গ্যাজেটের অপারেটিং সিস্টেম আপডেট রাখুন।

 

ধন্যবাদ সবাইকে এই পোষ্টটি কষ্ট করে পড়ার জন্য।