টেকলার্ন বিডির পক্ষ থেকে সবাইকে আবারও অভিনন্দন।

বর্তমানে স্মার্টফোন ব্যবহার করেন না এমন লোক খুব কমই পাওয়া যাবে। প্রায় সবার হাতেই এখন স্মার্টফোন দেখা যায়। তবে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের অনেকেই একটি সমস্যার সম্মুখীন হয়, আর তা হলো ডিভাইসটি ক্র্যাশ করা।

এ্যান্ড্রয়েড এ্যাপ্সের সবচেয়ে বড় ভান্ডার হচ্ছে প্লে-স্টোর (Play Store)। আপনি কি জানেন এই প্লে-স্টোর (Play Store) ই অনেক সময় ক্র্যাশ করে? তাছাড়া প্লে-স্টোর (Play Store) থেকে ডাউনলোড করা এ্যাপ্সের কারনেও আপনার স্মার্টফোন ক্র্যাশ করতে পারে। তাই ক্র্যাশ সমস্যা সমাধানে আপনি কিছু পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারেন। সে সম্পর্কেই আজকের এই পোস্ট।

App ক্র্যাশ করলেঃ

এ্যাপ ক্র্যাশ স্মার্টফোন হ্যাং হবার অন্যতম একটি কারণ। যেই এ্যাপটি ক্র্যাশ করেছে সেটির ডাটা ও Cache ক্লিয়ার করুন। এরপর যদি হ্যাং সমস্যার সমাধান না হয় তবে এ্যাপ্সটির আপডেট ভার্সণ আছে কিনা প্লে-স্টোরে চেক করুন। যদি আপডেট ভার্সণ থাকে তাহলে এটা আপডেট করে ফেলুন। এরপরও যদি সমস্যার সমাধান না হয় তবে এ্যাপ্সটি আনইনস্টল করে নতুন করে প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করে ফ্রেশ ইনস্টল করুন।

প্লে-স্টোর একাউন্ট সাইন আউটঃ

আপনি যদি প্লে-স্টোরে ঢোকামাত্রই ক্র্যাশ হওয়াটা অনুভব করেন, তাহলে প্লে-স্টোরে লগ ইন করা জি-মেইল আইডিটি থেকে লগ আউট করে পুনরায় লগইন করুন। আর এটা করতে Settings-এ গিয়ে Accounts-এ যাবেন। এরপর গুগল নির্বাচন করে একাউন্টটি ডিলেট করে দিন এবং আপনার ডিভাইসটি রিস্টার্ট দিয়ে পুনরায় লগইন করুন।

ক্যাশ ক্লিয়ার করেঃ

আপনি হয়তো জানেন স্মার্টফোনের ক্যাশে অনেক তথ্য জমা থাকে। আপনাকে কিছু দিন পর পর ক্যাশসমূহ ক্লিয়ার করতে হবে। আর এ জন্য আপনার ডিভাইসের সেটিংস থেকে Apps বা Application Manager-এ যান। এরপর All নির্বাচন করুন। আপনি ইনস্টল করা এ্যাপ্সসমূহ দেখতে পাবেন। সেখান থেকে কাংখিত এ্যাপ্সটি নির্বাচন করুন এবং Clear Cache চাপুন। প্রয়োজনে প্লে-স্টোরের ডাটাসমূহও ক্লিয়ার করতে পারেন।

ফ্যাক্টরী ডাটা রিসেটের মাধ্যমেঃ

উপরোক্ত পদ্ধতিসমূহ প্রয়োগ করার পরও যদি আপনার স্মার্টফোনটি বার বার ক্র্যাশ করে তবে আপনার ডিভাইসটি রিসেট করে ফেলুন। যাকে বলে ফ্যাক্টরী ডাটা রিসেট। আর এটা করার আগে অবশ্যই আপনার সমস্ত ডাটা Backup নিয়ে নিবেন এবং ডিভাইস থেকে সিম ও মেমোরী কার্ড আলাদা করতে হবে অর্থাৎ খুলে ফেলতে হবে। ফ্যাক্টরী ডাটা রিসেট করতে প্রথমে Settings- এ গিয়ে Backup and Reset-এ যাবেন। এরপর Factory Data Reset নির্বাচন করুন। ব্যাস, আপনার কাজ শেষ। কিছুক্ষন পর আপনার ডিভাইসটি রিবুট হয়ে রিসেট প্রক্রিয়া শুরু হবে। রিসেট প্রক্রিয়া শেষ হলে আপনাকে আবার নতুন করে সব সেটিংস ঠিক করতে হবে।

আশা করি আপনার ডিভাইসটি আর ক্র্যাশ করবে না। ধন্যবাদ।