কম্পিউটারের সেকেন্ডারি মেমোরি হিসেবে ব্যবহার হয় হার্ডডিস্ক বা হার্ডড্রাইভ। তবে এখন হার্ডড্রাইভ হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে স্টেট ড্রাইভ। গতানুগতিক হার্ডড্রাইভগুলো আইডি, সাটা, স্ক্যাজি, সাস, ফাইবার চ্যানেল কন্ট্রোলার ব্যবহার করে। নতুন প্রযুক্তির সলিড স্টেট ড্রাইভ একই কন্ট্রোলার ব্যবহার করে।
তবে একটি বিশেষ পার্থক্য হলো আগের হার্ডড্রাইভগুলো ছিল মেকানিক্যাল আর এসএসডি হার্ডড্রাইভগুলো হলো সেমিকন্ডাকটরভিত্তিক। যাকে সলিড স্টেট ড্রাইভ বলে অভিহিত করা হয়। আগের হার্ডডিস্কগুলো নির্দিষ্ট করে দেয়া হতো কোনটা সাধারণ ডেস্কটপ আর কোনটা উচ্চমানের সার্ভারের সঙ্গে ব্যবহার হবে। কিন্তু সলিড স্টেট ড্রাইভ কোনো নির্দিষ্ট মেশিনের জন্য নয়। এটি সাধারণ ব্যবহারকারীর কম্পিউটার থেকে শুরু করে ব্যবহার হবে বড় মাপের সব সার্ভারে। সলিড স্টেট ড্রাইভকে বলা হয় নেক্সট জেনারেশন স্টোরেজ।

সলিড স্টেট ড্রাইভ

পিসিআইই এসএসডি

বাজারে সাধারনত যে সলিড স্টেট ড্রাইভ পাওয়া যায় সেটি স্যাটা (SATA) ৩.০ হয়ে থাকে; স্যাটা হচ্ছে এক ধরনের কানেক্টর টাইপ, যেটা হার্ড ড্রাইভকেও কানেক্ট করে থাকে। কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা যে, পিসিআইই (PCIe) টাইপেরও সলিড স্টেট ড্রাইভ পাওয়া যায়; পিসিআইই হলো আরেক ধরনের কানেক্টর, যেটা গ্রাফিক্স কার্ডকে মাদারবোর্ডের সাথে কানেক্ট করে। এই দুই চ্যানেলের দুই টাইপের মধ্যে সবচাইতে বড় পার্থক্য হচ্ছে এদের কানেকশন স্পীড। স্যাটা ৩.০ প্রতিসেকেন্ডে প্রায় ৭৫০ মেগাবাইট পর্যন্ত ডাটা ট্র্যান্সমিট করতে পারে। যদিও এই ডাটা ট্র্যান্সমিট রেট শুনতে খুব একটা বিশাল শোনায় না, কিন্তু তারপরেও এই স্পীডে ডেক্সটপ গেম সহ আলাদা Application গুলো অনেক দ্রুত রান করানো সম্ভব।

অপরদিকে পিসিআইই Slot ১৫ গিগাবাইট প্রতি সেকেন্ড পর্যন্ত ডাটা ট্র্যান্সমিট করতে সক্ষম; যেখানে আজকের মার্কেটে পাওয়া পিসিআইই টাইপ এসএসডি ১.৫ গিগাবাইট/সেকেন্ড থেকে ৩ গিগাবাইট/সেকেন্ড পর্যন্ত ডাটা ট্র্যান্সমিট করতে পারে। সেখানে পুরাতন স্যাটা টাইপ সলিড স্টেট ড্রাইভ ৫০০-৫৫০ মেগাবাইট/সেকেন্ড পর্যন্ত ডাটা স্পীড রেট সমর্থন করে।।  আপনি যদি সাধারন কম্পিউটার ইউজার হোন, জাস্ট আপনার পিসি এবং Application গুলোকে ফাস্ট রান করাতে চান সেক্ষেত্রে আপনার জন্য স্যাটা টাইপই ঠিকঠাক হবে, কিন্তু Enterprise কাজের জন্য, সার্ভারের জন্য, অথবা আপনি বাড়িতে একটি হোম সার্ভার তৈরি করেছেন, যেখান থেকে সকল ডিভাইজে মিডিয়া, গেমিং শেয়ার করছেন, বা এমন কোন ধরনের কাজ যেখানে হাই ডাটা ট্র্যান্সমিট রেট প্রয়োজনীয়, সেখানে পিসিআইই সলিড স্টেট ড্রাইভ বেশি উপযোগী হবে।

কখনোই ডিফ্র্যাগমেন্ট করবেন না

এইচডিডি’র জন্য ডিফ্র্যাগমেন্ট করানো ঠিক আছে, সেখানে ফিজিক্যাল চাকা থাকে যেখানে ডাটা রাইট হওয়ার সময় বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাইট হয়, ডিফ্র্যাগমেন্ট করানোর মাধ্যমে ডাটা গুলোকে চেপে একত্রে আনা হয়, যাতে হেড একে দ্রুত Access করতে পারে। কিন্তু সলিড স্টেট ড্রাইভের ব্যাপার আলাদা। আপনার কখনোই সলিড স্টেট ড্রাইভকে ডিফ্র্যাগমেন্ট করানো উচিৎ নয়। সলিড স্টেট ড্রাইভে কতোবার ডাটা রাইট করা যাবে তার একটি লিমিট থাকে, কম দামের ড্রাইভ হলে এর লিমিট আরো কম হয়। ডিফ্র্যাগমেন্টিং প্রসেস, ডাটা গুলোকে একত্র করতে অনেক রাইট অপারেশন চালায়, যাতে আপনার এসএসডি’র আয়ুকাল হ্রাস পায়।

হার্ড ড্রাইভের মতো এতে কোন মুভিং পার্টস থাকে না, তাই ড্রাইভের যে সেক্টরেই ডাটা থাক না কেন, ড্রাইভ সেটাকে রীড & রাইট করার ক্ষমতা রাখে। তাছাড়া এই ড্রাইভকে এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে, যাতে ডাটা গুলো চারিদিকে সমানভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এখানে কোন হেড নেই যেটা ফিজিক্যালি কোথাও মুভ করে তারপর ডাটা Access করবে। এতে থাকা কন্ট্রোলার যেকোনো জায়গা থেকে ইনস্ট্যান্ট ডাটা Access করতে সক্ষম। আপনি যদি উইন্ডোজ ৭ ব্যবহার করেন তাহলে আপনার অপারেটিং সিস্টেমে ডিফল্টভাবে এসএসডি’র জন্য ডিফ্র্যাগমেন্ট অফ করা রয়েছে। উইন্ডোজ ৭ এর পর সকল মডার্ন উইন্ডোজে এটি ডিফল্টভাবেই অফ থাকে।

সলিড স্টেট ড্রাইভ

বেশি রাইট করবেন না

সলিড স্টেট ড্রাইভের একটি নির্দিষ্ট রাইট করার লিমিট থাকে, তাই যদি ড্রাইভের আয়ুকাল বাড়াতে চান, সেক্ষেত্রে বেশি ডাটা রাইট করা থেকে বিরত থাকুন। সলিড স্টেট ড্রাইভকে আমরা সাধারনত অপারেটিং সিস্টেম এবং সফটওয়্যার ধারণ করে রাখার জন্য ব্যবহার করি, কিন্তু সফটওয়্যার গুলো অনেক লগ ফাইল আর অস্থায়ী ফাইল তৈরি করে, আপনি চাইলে সিস্টেমে একটি আলাদা হার্ড ড্রাইভ রাখতে পারেন এবং সেখানে সফটওয়্যার গুলোর অস্থায়ী ফাইল এবং লগ সেভ করার জন্য সেট করে দিতে পারেন। এতে রাইটের পরিমান কমে যাবে।

তাছাড়া সলিড স্টেট ড্রাইভের পাশাপাশি অবশ্যই ম্যাকানিক্যাল হার্ড ড্রাইভ ব্যবহার করুণ। এসএসডি’তে সকল প্রোগ্রাম ইন্সটল করুণ এবং হার্ড ড্রাইভে বড় বড় মিডিয়া ফাইল গুলোকে সেভ করে রাখুন। মিডিয়া ফাইল বা অনেক বড় ফাইল গুলোকে সলিড স্টেট ড্রাইভে রাখা ঠিক না, বরং এমন কোন ফাইলকে রাখা ঠিক না যেটা বারবার Access করার দরকার পড়ে। তাই অবশ্যই পিসিতে সলিড স্টেট ড্রাইভের পাশাপাশি মিডিয়া সেভ করার জন্য এইচডিডি ব্যবহার করুণ।

দ্রুত গতির বুটিং, ফাস্ট পিসি, লেস পাওয়ার এবং একসাথে দুইটি ড্রাইভ (এসএসডি + এইচডিডি) ব্যবহার করার সামর্থ্য থাকলে, অবশ্যই আপনার জন্য সলিড স্টেট ড্রাইভ বেস্ট ।

সলিড স্টেট ড্রাইভের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিকটি হলো এর স্থায়িত্ব। কারণ মেকানিক্যাল হার্ডডিস্ক যেখানে ২, ৩ বা ৫ বছর সাপোর্ট দিতে সক্ষম সেখানে স্টেট ড্রাইভ হয়তবা টিকে থাকবে বছরের পর বছর। এর পেছনে আরো একটি যুক্তিও রয়েছে আর সেটি হলো হার্ডডিস্কে রয়েছে অনেক পার্টস। যতই দিন গড়ায় সেই পার্টসগুলো ক্ষয় হতে থাকে। তাই তার স্থায়িত্বও কম। আর আইসির [সেমিকন্ডাকটর] ওপর গড়ে ওঠা এসএসডি টিকে থাকলে থাকবে অনেক বছর আর নষ্ট হলে একেবারেই নষ্ট হবে। এক পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে এসএসডি একটি মেকানিক্যাল হার্ডডিস্কের তুলনায় ৫০-৬০ বছর বেশি টিকে থাকবে। প্রচলিত হার্ডডিস্কগুলো থেকে অনেক শব্দের সৃষ্টি হয় সেখানে এসএসডি চলবে নিঃশব্দে। ডেটা রিড-রাইটের প্রশ্নে এসএসডি সবচেয়ে এগিয়ে। মেকানিক্যাল হার্ডডিস্কগুলোকে হেডের অপেক্ষায় থাকতে হয় কখন সেই নির্দিষ্ট সেক্টরে হেড আসবে আর ডেটা রিড রাইট হবে। এদিক থেকে ফ্ল্যাশ মেমোরির এসএসডি মুহূর্তের মধ্যেই ডেটা রিড-রাইট করতে সক্ষম।