ভাষা অনুবাদ নিয়ে ঝামেলার দিন শেষ করতে এসে গেল ওয়ানটুওয়ান ডিভাইস।

টেকলার্ন বিডির পক্ষ থেকে সবাইকে আবারও অভিনন্দন। আজ আমি আপনাদের সাথে একটি গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইস নিয়ে আলোচনা করব যার নাম ওয়ানটুওয়ান ডিভাইস। ওয়ানটুওয়ান ডিভাইস দিয়ে আপনি কি সুবিধা পাবে সে ব্যাপারেই এখন আলোচনা করব। তো চলুন শুরু করা যাক।

বিভিন্ন প্রয়োজনে আমাদেরকে বিভিন্ন ভাষাভাষী লোকদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করতে হয়। যদিও আন্তর্জাতিক ভাষা হিসেবে ইংরেজী বিশ্বজুড়ে সমাদৃত। কিন্তু মাতৃভাষা না হওয়ার কারণে এ ভাষার দখলও অনেকের ভাল না। তাছাড়া জাপানি, চীনা, ইতালিয়ান, ও ফরাসি ভাষা সম্পর্কে একার পক্ষে ধারণা রাখাও বেশ দুরুহ ব্যাপার।

তবে চিন্তা নেই ওয়ানটুওয়ান ডিভাইস এক সেকেন্ডেই এক ভাষার শব্দ অন্য ভাষায় অনুবাদ করে শোনাবে। আইবিএম ওয়াটসনের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তির এই ডিভাইসটি কানে পরলেই এক ভাষার শব্দ অন্য ভাষায় অনুবাদ করে শোনা যাবে। আর এ সুবিধা ভোগ করতে প্রয়োজন হবে না ইন্টারনেটেরও।

প্রাথমিকভাবে চীনা, জার্মান, পর্তুগিজ, স্প্যানিশ, ইতালিয়ান, ফরাসি, জাপানি ও ইংরেজী ভাষায় অনুবাদ করতে পারে এই ওয়ানটুওয়ান ডিভাইসটি। যার ফলে ভিন্ন ভাষাভাষীরা বিভিন্ন দেশে ভিজিটের সময় ডিভাইসটি কানে পরলেই আশপাশের শব্দ সহজেই নিজ ভাষায় শুনতে পারবেন। অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান লিংমো ইন্টারন্যাশনাল এই ডিভাইসটি উদ্ভাবন করেছে। এরই মধ্যে প্রদর্শনের জন্য জেনেভায় ইউনাইটেড নেশনস আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স ফর গুড সামিটেও তারা পাঠিয়েছে এই ডিভাইসটি। ডিভাইসটি চলতি মাসেই বাজারে আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর এটা সংগ্রহ করতে আপনাকে গুনতে হবে প্রায় ১৭৯ ডলার।

ধন্যবাদ। তো থাকুন আমাদের সাথে আর উপভোগ করুন প্রযুক্তির সর্বশেষ সংবাদ।