আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন সবাই। techlearnbd এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে আবারও অভিনন্দন জানিয়ে শুরু করছি আমি মোঃ মাছুম পারভেজ। আজ আমি আপনাদের কম্পিউটার সুরক্ষা বিষয়ক ট্রিকস নিয়ে হাজির হয়েছি।

যেহেতু বজ্রপাতের পরিমাণ বেড়েছে আগের চেয়ে বহুগুনে। সেহেতু কম্পিউটার সহ আপনার সকল ইলেকট্রনিক্স পন্যসমূহের ক্ষতি এড়াতে আপনাকে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। কিছু কিছু ব্যাপারে সচেতন থাকলে  প্রযুক্তি পন্যকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করা যায়। তো চলুন জানা যাক বজ্রপাত শুরু হলে কি কি করবেন।

=> বজ্রপাত শুরু হলেই কম্পিউটার সাথে সাথে শাট ডাউন দিয়ে দিবেন। কম্পিউটার শাট ডাউন হওয়ার পর ইউপিএস সহ বৈদ্যুতিক সুইচ অফ করে দিবেন। যেকোন সময়ই বজ্রপাত শুরু হতে পারে তাই ক্ষতি এড়াতে বাসা থেকে বের হওয়ার পূর্বেই সব বৈদ্যুতিক সুইচ অফ করে দিবেন।

==> অনেকেই কম দামে মাল্টিপ্লাগ কিনে ব্যবহার করে থাকেন যেগুলোতে বৈদ্যুতিক প্রবাহ নিয়ন্ত্রন ক্ষমতা খুব একটা থাকে না। যার ফলে হাই ভোল্টেজ ও বজ্রপাতের সময় আপনার কম্পিউটার সহ সকল ডিভাইসে এর বিরুপ প্রভাব পড়তে পারে। এজন্য আপনাকে অবশ্যই একটি ভালমানের মাল্টিপ্লাগ ব্যবহার করতে হবে। বাজারে বিভিন্ন দামের ভাল মাল্টিপ্লাগ পাওয়া যায় যার দাম পাঁচশত টাকা থেকে শুরু করে তিন হাজার টাকা পর্যন্ত।

===> বজ্রপাতের সময় যে ডিভাইস গুলো সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখিন হয় তার মধ্যে রাউটার অন্যতম। বজ্রপাতের পূর্বাভাস শুরু হলে শুধু রাউটারের পাওয়ার বন্ধ করলেই হবে না সাথে সংযুক্ত থাকা ল্যান ক্যাবলটিও খুলে ফেলতে হবে। অবশ্য অপটিক্যাল ফাইবার ব্যবহার করলে কিছুটা নিরাপদ থাকা যায়। কেননা অপটিক্যাল ফাইবারে ধাতব তারের ব্যবহার হয় না। যার ফলে ক্ষতির সম্ভাবনা কম থাকে।

====> আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো বাসা বাড়িতে আর্থিংয়ের ব্যবস্থা করা। আর্থিং বজ্রপাতের পর বিদ্যুৎকে নিরাপদে মাটিতে নিয়ে যেতে সাহায্য করে। ফলে আপনার ইলেকট্রিক পন্য নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

=====> অনেকে কম্পিউটারের সাথে টিভি কার্ড ব্যবহার করে থাকেন যাতে ডিশের সংযোগ থাকে। বজ্রাপাতের সময় ডিশের সংযোগটি খুলে রাখবেন। তা না করলে টিভি কার্ডের পাশাপাশি কম্পিউটারটিও নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

ধন্যবাদ।