ফায়ারওয়াল এর নাম কম্পিউটার ও ইন্টারনেট এর দুনিয়াই নতুন কিছু না। ফায়ারওয়াল (Firewall) কি? এবং এটি কীভাবে কাজ করে? এই দুইটি বিষয় যদি জানা থাকে তবে  জেনে যাবেন যে এটি আপনার কম্পিউটারের জন্য কতটা প্রয়োজনীয়! কম্পিউটার জগতের বাহিরে উদাহরণ দিতে গেলে, Firewall এমন একধরনের  Protection যা বাহিরের আগুন ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়না এবং ভেতরের আগুন বাহিরে যেতে দেয় না।

এভাবেই Firewall  দুইদিক থেকেই আপনাকে Protect  করে। যদি কম্পিউটারের দুনিয়ায় ফায়ারওয়াল নিয়ে কথা বলি তো এটি এমন এক ধরনের Protection, যখনই আপনি Internet ব্যবহার করেন আপনার কম্পিউটারের মাধ্যমে এবং যেকোনো ওয়েবসাইট Access করেন সেটা Online Video দেখুন আর কিছু ব্রাউজ করুন বা কোন mail পাঠান তো এই সময় Firewall আপনাকে সুরক্ষা প্রদান করে আপনার কম্পিউটারে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু প্রবেশ হওয়া থেকে। অনেক সময় ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময় অনাকাঙ্ক্ষিত সফটওয়্যার, Malware ইত্যাদি অনুমতি ছাড়া কম্পিউটারে প্রবেশ করে ফেলে এবং প্রবেশ করার পরে আপনার কম্পিউটারের Files বা  System এর  ক্ষতি সাধন করে। Firewall শুধু মাত্র বিশ্বস্ত সাইটকে অনুমতি প্রদান করে ফাইল আপনার কম্পিউটারে রাখার জন্য। এবং সকল অনাকাঙ্ক্ষিত Software,Malware ইত্যাদিকে কম্পিউটারে বিনা অনুমতিতে প্রবেশ করার জন্য বাধা প্রদান করে থাকে।অনুরুপ ভাবে মনে করুন, আপনার কম্পিউটারটিতে কোন ভাইরাস আছে এবং আপনার কম্পিউটারটি কোন Local Network এর সাথে সংযুক্ত হয়ে আছে এবং সেখানে আরো ১০-২০ টা Computer  যুক্ত আছে (যেমনটা আপনার অফিসে হয়ে থাকে)। তো আপনার কম্পিউটারটি তো কোন ভাবে Virus দ্বারা আক্রান্ত হয়েই গেছে, কিন্তু Firewall  আপনার Local Network এ থাকা কম্পিউটার গুলোতে যেন সেই ভাইরাস না ছড়াতে পারে তার সুরক্ষা হিসেবেও কাজ করে।

ফায়ারওয়ালের প্রকারভেদ :  ফায়ার-ওয়াল সাধারনত দুই প্রকারে দেখতে পাওয়া যায়।

একটি হলো হার্ডওয়্যার নির্ভর ফায়ার-ওয়াল এবং আরেকটি হলো সফটওয়্যার নির্ভর ফায়ার ওয়াল।

হার্ডওয়্যার নির্ভর ফায়ার-ওয়াল সাধারনত রাউটারে দেখা যায়। তাছাড়া  ডেডিকেটেড ফায়ার-ওয়াল ডিভাইজ ও বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। এবং এই ডিভাইজ গুলো এক প্রকার হার্ডওয়্যার প্রোটেকশন প্রদান করে থাকে। মনে করুন আমি একটি রাউটার বাজার থেকে কিনে নিয়ে আসলাম এবং এর সাহায্যে ১০ টি ডিভাইজ সংযোগ করলাম ইন্টারনেটে। এখন আমার রাউটারটিতে যদি ফায়ার ওয়াল চালু করা থাকে তবে রাউটারটি আমার সংযোগ করা ১০ টি  ডিভাইজকেই ফায়ার ওয়াল সুরক্ষার আওতায় নিয়ে আসবে। এখন এই রাউটার ফায়ার-ওয়াল কীভাবে কাজ করে, আপনি যখনই কোন ইন্টারনেট ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন বা প্রবেশ করার জন্য আপনার ব্রাউজার থেকে রিকুয়েস্ট পাঠান তখন আপনার সেন্ড করা রিকুয়েস্ট এর সাথে আপনার নেটওয়ার্ক আইডি যুক্ত হয়ে যায়। এবং রাউটার সেই রিকুয়েস্টকে প্যাকেট রূপে কাঙ্ক্ষিত সার্ভার এর কাছে পাঠিয়ে দেয়  এবং সার্ভার থেকে যখন ফিরতি প্যাকেট Router এর কাছে পৌছায় তখন সেই প্যাকেটেও আপনার নেটওয়ার্ক আইডি যুক্ত থাকে এবং রাউটারে অবস্থিত ফায়ার-ওয়াল আসল প্যাকেট গুলো চিনতে পারে এবং সেগুলো আপনার ডিভাইজে সেন্ড করে দেয়। এখন রাউটারে যদি এমন কোন প্যাকেট আসে যাতে আপনার নেটওয়ার্ক আইডি নেয়, তবে ফায়ার-ওয়াল সেটিকে তাৎক্ষনিক Block করে দেয়।

বিভিন্ন এন্টিভাইরাস নির্মাতা কোম্পানিগন যেমন অ্যাভাস্ট, নরটন, এভিজি, ম্যাক্যাফি ইত্যাদিরা সাধারনত তাদের এন্টিভাইরাস এর সাথে ফায়ার ওয়াল সুরক্ষা প্রদান করে থাকে। তাছাড়াও উইন্ডোজ এর ভেতরে ডিফল্ট ভাবে ফায়ারওয়াল এর সুবিধা থাকে এবং সফটওয়্যার নির্ভর ফায়ার ওয়াল গুলোও হার্ডওয়্যার নির্ভর ফায়ার-ওয়াল এর মতোই কাজ করে  এবং এরা একটি কাজ এক্সট্রা করে সেটা হলো মনে করুন আপনি আপনার সিস্টেমে বা কম্পিউটারে কোন গেম ইন্সটল করলেন বা কোন সফটওয়্যার ইন্সটল করলেন এবং যদি সেই গেমটি বা সফটওয়্যারটি কোন ইন্টারনেট সংযোগের জন্য রিকুয়েস্ট করে তবে আপনার কম্পিউটারে অবস্থিত ফায়ার ওয়াল থেকে আপনার কাছে একটি পপআপ আসবে অনুমতি চেয়ে। আপনি ইন্টারনেট অনুমতি প্রদান না করা পর্যন্ত আপনার ইন্সটল করা সফটওয়্যারটি ইন্টারনেট ব্যবহার করে কোন ডাটা সেন্ড বা রিসিভ করতে পারবেনা। উইন্ডোজ ফায়ার ওয়াল সবসময় এটা মনিটর করে যে, আপনার কম্পিউটারের যে আউট গোয়িং ট্র্যাফিক এবং যে Incoming  ট্র্যাফিক তাদের Source কোথায়, তাদের IP Address কি, এরা বিশ্বস্ত কিনা বা কোন Incoming ট্র্যাফিক অনাকাঙ্ক্ষিত Software Install করছে কিনা। তো এই সকল জিনিস মানেজ করে সিদ্ধান্ত নেয় যে কোন কোন ট্র্যাফিক কে আসতে দেবে এবং কোন গুলো Block করবে।ফায়ারওয়ালের প্রয়োজনীয়তা অনেক সময় আপনি ভাবতে পারেন যে, এটি অনেক বিরক্তিকর একটি বিষয়, বারবার সব সফটওয়্যার এর জন্য অনুমতি দিতে হয়, বারবার পপআপ আসে ইত্যাদি। তবে  এটি একটি অনেক ভালো জিনিস। যদি এটি না থাকে তবে আপনার কম্পিউটারে যেকোনো ভাবে যেকোনো স্থান থেকে আক্রমন আসতে পারে। এবং তা প্রতিরোধ করার জন্য আপনার কাছে কোন ব্যাবস্থা থাকবেনা। আপনি ইন্টারনেটে হয়তো ব্যবহার করছেন Google.com কিন্তু কোথায় থেকে যে কোন সফটওয়্যার এসে কম্পিউটারে Install হয়ে যাবে টেরও পাবেন না। আর সেই সফটওয়্যার আপনার কম্পিউটারে প্রবেশ করে আপনার ডাটা চুরি করতে পারে, আপনার অনলাইন Account Information বা আপনার Credit Card Information চুরি করতে পারে।

তো এই অবস্থায়  Hardware নির্ভর ফায়ার-ওয়াল হোক আর Software নির্ভর Firewall হোক, আপনার একটি ফায়ারওয়ালের অবশ্যই প্রয়োজন যদি আপনি আপনার কম্পিউটারে Internet  ব্যবহার করেন। কেনো না Internet জগতে অনেক ভাইরাস যুক্ত সাইট আছে।অনেক সময় আপনার কম্পিউটারে অনেক Software  আসে অ্যান্টিভাইরাস এর রুপ ধারণ করে কিন্তু সেই Software গুলো নিজেই এক ধরনের ভাইরাস হয়ে থাকে। কখনো কখনো হয়তো আপনি কোন সাইটে প্রবেশ করলেন আর আপনার কাছে ম্যাসেজ আসে; Your System Memory is low; অথবা;আপনার ডিভাইজটি ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে, এক্ষুনি পরিষ্কার করে নিন  ইত্যাদি।

আপনি এই সকল ম্যাসেজ পড়ে যখনই সেগুলতে ক্লিক করেন তখনই আপনার কম্পিউটারে কোন Software ডাউনলোড হয়ে যায় এবং এই সফটওয়্যার গুলো Memory Clean না করে উল্টা Memory Jam করে ফেলবে আপনার  তো এই সকল অনাকাঙ্ক্ষিত বিষয় থেকে বাঁচতে আপনার কম্পিউটারে Firewall থাকা অনেক বেশি জরুরী।