আমাদের জিমেইল এর ইনবক্সে জমা হচ্ছে প্রচুর ই-মেইল। আপনার এই মূল্যবান ই-মেইলগুলো কতটা নিরাপদ? পাসওয়ার্ড ভুল ও হ্যাকারদের  কারণে ই-মেইলের ব্যাকআপ নেওয়া অত্যন্ত জরুরি । কারণ যেকোন সময় সামান্য ভুলের কারণে হাত ছাড়া হয়ে যেতে পারে আপনার গুরুত্বপূর্ণ ই-মেইলগুলো। তাই ই-মেইল ব্যাকআপের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে একটু আলোকপাত করতে চাই। তো চলুন শুরু করা যাক।

কি জন্য ব্যাকআপ নেওয়া দরকার?????

=> অনেক সময় জিমেইলের ই-মেইল হ্যাক হয়ে যাওয়া একাউন্টে থাকা দরকারি  ই-মেইলগুলো একসেস করতে পারবেন।

=> অনেক সময় জিমেইলের ই-মেইল ভুলক্রমে ডিলিট হয়ে যায় ডিলিট  হওয়া ই-মেইল ব্যাকআপ থাকাতে সহজে ফরওয়ার্ড করে নিতে পারবেন।

=> অনেক সময় আপনাদের পাসওয়ার্ড ভুলে যেতে পারেন।

জিমেইল ব্যাকআপ নেওয়ার বেশ কয়েকটি পদ্ধতি রয়েছে। ভালো পদ্ধতি হল ই-মেইল ফরওয়ার্ডিং সিস্টেম। তাছাড়া আপনি বিভিন্ন ব্যাকআপ সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারবেন। তো চলুন এবার আসি মূল আলোচনায় অর্থাৎ কিভাবে জি-মেইলে লগইন ছাড়াই পড়তে পারবেন জি-মেইলে আসা মেইলগুলোঃ

=> প্রথমে জিমেইলে লগিন করুন।

=> এবার সেটিংস থেকে Forwarding and POP/IMAP  ক্লিক করুন।

=> Add a forwarding address-এ যে মেইল থেকে জিমেইল চেক করবেন সেই ই-মেইল অ্যাড্রেসটি দিন। এই ই-মেইলেই ফরওয়ার্ড হবে জিমেইলে আসা ই-মেইলগুলি। ফরওয়ার্ডকৃত মেইলে একটি কোড যাবে সেটি পূর্বের Forwarding and POP/IMAP এ গিয়ে পেস্ট করে দিয়ে ভেরিফাইতে ক্লিক করুন। ব্যাস।

ই-মেইল ফরওয়ার্ডিং করার সুবিধা হল একটি মেইলের কপি দুইটি ই-মেইল অ্যাড্রেসে চলে যাবে। জিমেইলের অ্যাকাউন্ট অন লাইন না থাকলে বা ই-মেইল অ্যাড্রেস ব্যাবহার না করলেও সেটকৃত ই-মেইল অ্যাড্রেসে ফরওয়ার্ডকৃত ই-মেইলগুলো পাওয়া যাবে।

ধন্যবাদ।